আমাদের কথা খুঁজে নিন

   

মহাকালের পথ যাত্রায় ক্ষণিকের যাত্রি, এই পথে হাঁসি কান্না আনন্দ বেদনা.... ! "রিমি" ঘরের লাইট অফ করে বসে আছে । জীবনের সব ছোট বড় সৃতি গুলো মনের গহিন প্রান্তে একলা খেলা করছে । সে আনমনে বসে আছে ,কিছু সময়ের অপেক্ষায় । কিছুক্ষণ পর সে পৃথিবী থেকে বিদায় নিবে । হাত মুঠো করে কিছু ঘুমের ট্যাবলেট শক্ত করে ধরে আছে ।

এ সময় সবচেয়ে তার মায়ের কথা মনে পড়ছে । মা তাকে সবসময় আগলায় রাখতো । আনন্দ বেদনার সবচেয়ে কাছের বন্ধু । গত দু বছর আগে তাকে একলা করে চলে গেলেন । মাকে স্বার্থপর মনে হতে লাগল তার ।

তার বাবা মারা গেছে জন্মের পর। বাবার তেমন সৃতি মনে করতে পড়ছে না । মা হীন মেয়ে টাকে আগলায় রাখছে তার বড় ভাই । পুতুল নাচের পুতুলের মত বড় হচ্ছে সে । নিজের চাওয়া পাওয়া এ জগতে তার মূল্য হীন ।

ভাবির খামাখা শাসন আর বন্দি জীবন টাকে পরিণীত করেছে দুর্গ্রহের মানুষে । রিমি আর কষ্ট পায় না । আপন দুঃখে কাতর মেয়েটি খুব সহজে দুঃখ কে মানায় নেয় । দুঃখ বিলাসীদের ন্যায় দুঃখ গুলো মনের গহিনে ঝড় তুললেও ভারি পাথরে চাপা দিতে শিখে গেছে । তার নিয়তির একটি অংশ এমনি হয়ত ।

; আজ তার প্রিয় মানুষটির সাথে সব কিছু চুকিয়ে এসেছে । চোখে আর পানি আসে না । চোখ গুলো কেমন যেন রুক্ষ হয়ে গেছে । তবু মুখে হাঁসি ফুটিয়ে বিদায় বলেছিল রিমি । মানুষটার জন্যে একটু কষ্ট হচ্ছে তার ।

হঠাৎ এসেছিল সেদিন । সবসময় হাঁসাতে চাইতো সে । সৃতি ভাণ্ডারে অনেক সৃতি জমে আছে এ মানুষটিকে ঘিরে । তাকে কখনো আনন্দের গল্প শুনায় নি রিমি । সব সময় চুপ থেকে কথা শুনত ।

তার কথা শুনতে ভাল লাগত রিমির । পৃথিবীর সবচেয়ে আপন মানুষ হিসেবে জাকে ভাবা শুরু করেছিল তার সাথেও সব সম্পর্কের ইতি আজ । অনেক স্বার্থপর এ জগত । রিমি নিজেকেও অনেক স্বার্থপর মনে হচ্ছে । ;কাল রিমির বিয়ে ,ভালো ছেলে পাওয়ায় বিয়ে দিয়ে দিচ্ছে ।

একবার ও রিমির ইচ্ছা অনিচ্ছা কেউ ভাব-লোনা । বড় ভাই অনেক আদুরেয় আগলায় রেখেছে রিমি কে । আর কত কাল আগলায় রাখবে ,একদিন তো বিয়ে দিতেয় হবে । রিমি সবে অনার্স শুরু করেছে ,বাড়িতেও শে চাবি ওয়ালা রোবটের মত বড় হচ্ছে । দিন তো থেমে থাকে না কারো জন্য ।

;বাহিরে বৃষ্টি হচ্ছে । রিমি জানালার কাছে হাত বারিয়ে রেখেছে বৃষ্টি ছোবে বলে । তার মা তাকে সব সময় বলত রিমি অনেক সুখী হবে ,কংক্রিটের এ জগতে রিমি সুখ খুঁজে পায় না । প্রবল বেগে বৃষ্টি নামছে । রিমির ভিজতে মন চাচ্ছে ।

রাত এগারোটা ,রিমি কাউকে পরোয়া না করেয় ছাদে চলে গেল । কষ্ট গুলো ঢেকে মনের আনন্দে ভিজছে । আপন মনে ভাবছে রিমি পরাজিত সৈনিক না , বাঁচতে হবে ,দেখতে হবে এ গল্পের শেষ , সুখ খুঁজে নিতে হবে এ নিষ্ঠুর জগতে । রিমির রুক্ষ চোখ থেকে অশ্রু গড়িয়ে বৃষ্টির সাথে এক হয়ে প্রকৃতি কেঁদে যাচ্ছে ...। [কল্পনায় লেখা , কারো সাথে মিলে গেলে কাকতালীয় ।

। । জুন ২০১৩ শেষ প্রহর ]  ।

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।