আমাদের কথা খুঁজে নিন

   

অ্যালগরিদমের নতুন পাঠ এবং একটুখানি অনুধাবন!!

আমি স্বপ্ন দেখি, দেখি স্বপ্নভঙ্গের হাহাকার কিংবা স্বপ্ন বাস্তবায়নের উল্লাস, দেখি সমাজের অন্যায় অবিচারের সাথে স্বপ্নের সংঘর্ষ, আবার হয়তবা স্বপ্নের হাতে হাত রেখে জীবনের ছুটে চলা। কিন্তু সবশেষে হঠাৎ ভাবি, সবই কি ছিল একটা অর্থহীন স্বপ্ন! হোকনা তাই, তবু আমি স্ ইউনিভার্সিটির সিলেবাসে অ্যালগরিদমের উপর কোর্স ছিল। কিন্তু এই কোর্সগুলো নেবার সময় শিক্ষকদের মধ্যে শেখানোর আগ্রহ খুব একটা লক্ষ করিনি, বরঞ্চ যত শীঘ্র কিছু সর্টিং, সার্চিং শিখিয়ে সিলেবাস শেষ করা যায় সেদিকে তারা বেশি যত্নবান ছিলেন! যাইহোক, সেই সময় ফাঁকিবাজি করে পাস করে গেছি কিন্তু পরবর্তিতে যখন উচ্চশিক্ষার প্রয়োজনে নিজে বইগুলোর পাতা উলটিয়েছি, দেখেছি যে অত্যন্ত সুরচিত, তথ্যসমৃদ্ধ এই টেক্সটবুক গুলোর জ্ঞানভাণ্ডার ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হয়েছি। কারণ, বিদেশি লেখকদের লিখা এই বইগুলোর প্রথমদিকে কিছু প্রাথমিক এবং অতিগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের বিশদ ব্যাখ্যা থাকে যা ঠিকভাবে রপ্ত না করতে পারলে বইগুলোর পরবর্তী অধ্যায়গুলো বোঝা বেশ কষ্টসাধ্য, এমনকি কোন কোন ক্ষেত্রে প্রায় অবোধ্য হয়ে ওঠে। কিন্তু অধিকাংশ শিক্ষককেই দেখেছি এই প্রাথমিক অধ্যায়গুলো কোন গুরুত্ব না দিয়ে সোজা পরবর্তী কঠিন টপিকগুলোর দিকে মনোনিবেশ করতে। তাই পরীক্ষার ফলটা ভাল হলেও, অধিকাংশ ছাত্রছাত্রীর বেসিক খুবই দুর্বল থেকে যেত। তবে এটা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই যে, যেই শিক্ষকেরা এর অন্যথা করতেন ( মৌলিক অধ্যায়গুলোর ওপর জোর দিতেন ), ছাত্ররা অভিযোগ করত " ওনার লেকচার আমাদের এন্টেনার ওপর দিয়ে যায় "। তাই, ছাত্র এবং শিক্ষকদের যৌথ প্রযোজনায় আমাদের বিশ্ববিদ্যাল্যের শিক্ষাব্যবস্থা আজ "স্ব-উপায়ে শিক্ষিত"। যাইহোক, সম্প্রতি আমি অ্যালগরিদমের উপর একটা নতুন বই পেলাম যা মূলত ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফর্নিয়া অ্যাট সান ডিয়েগোর কয়েক শিক্ষকের অধ্যাপনাকালে তাদের তৈরি নিজস্ব ক্লাস নোটের/লেকচারের কম্পাইলেশন। বইটা পড়তে গিয়ে দেখলাম, বইটার প্রথমেই অ্যালগরিদম পাঠের উদ্দেশ্য পরিষ্কার ব্যাখ্যা করা হয়েছে এবং প্রথমের অনেকখানি জুড়ে অ্যালগরিদমের এক্কেবারে গোঁড়া থেকে আলোচনা করা হয়েছে খুবই সহজভাবে, যা আমি কক্ষনো আমাদের কোন শিক্ষককে বলতে বা আলোকপাত করতে শুনিনি। এটাও বুঝলাম যে অ্যালগরিদমের উপর কোর্সটা করার সময় আমার আবস্থা ছিল ঠিক যেন, "ঢাল নাই তলোয়ার নাই, নিধিরাম সরকার" !! এখন উপলব্ধি করছি যে, আমাদের বিশ্ববিদ্যাল্যের শিক্ষা পদ্ধতি আমাদের কতটা পঙ্গু করে দেয়, কতটা পিছিয়ে দেয়। একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যাল্যের ছাত্র হিসেবে বুঝি, আমি ও আমার মত আরও হাজারো ছাত্রের আমার knowledge Base কতটা দুর্বল! অ্যালগরিদমের কোর্সটা একটা স্যাম্পল মাত্র। ছাত্র ও শিক্ষকদের নিজেদের ভালর জন্যেই উচিৎ শিক্ষাকে উপযুক্তভাবে গ্রহণে ও প্রদানে উৎসাহী হওয়া।

সোর্স: http://www.somewhereinblog.net     দেখা হয়েছে বার     বুকমার্ক হয়েছে বার

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।