আমাদের কথা খুঁজে নিন

   



পবিত্র মাহে রমাদ্বান শরীফ এর কতিপয় মাসয়ালা, যেগুলো সম্পর্কে জ্ঞান রাখা প্রত্যেক মুসলমান নর-নারীর জন্য অবশ্য কর্তব্য। মাসয়ালা-১: প্রাপ্ত বয়স্ক-বয়স্কা ও সুস্থ ব্যক্তির উপর রোযা রাখা ফরয। তাই অপ্রাপ্ত বয়স্ক-বয়স্কাদের উপর রোযা ফরয নয়। অক্ষম ব্যক্তির উপর রাখা ফরয নয়। তবে পরে ক্বাযা করবে বা ফিদিয়া দিবে, অবস্থা অনুযায়ী। মাসয়ালা-২: অনিচ্ছাকৃত বা অপারগতার কারণে রোযা ছুটে গেলে তার জন্য শুধু কাযা ওয়াজিব হবে। এতে কাফফারা নেই। মাসয়ালা-৩: নিয়ত করে রোযা রাখার পর ইচ্ছাকৃত রোযা ভঙ্গকারী ব্যক্তিকে রোযার কাযা ও কাফ্‌‌ফারা উভয়টাই আদায় করতে হবে। ১টি রোযার কাফফারা হলো; ক. একজন গোলাম আযাদ করা, অথবা খ. একাধারা দু’মাস রোযা রাখা, অথবা গ. ৬০ জন মিসকীনকে দু’বেলা খাদ্য দান। (কুদুরী, শামী) মাসয়ালা-৪: রোযা অবস্থায় সুবহে ছাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত খাদ্য পানীয় গ্রহণ এবং একান্তবাস থেকে ফিরে থাকা ফরযে আইন। মাসয়ালা-৫: অনিচ্ছাকৃত কিছু খেয়ে ফেললে রোযা ভঙ্গ হবে না। মাসয়ালা-৬: রোযা অবস্থায় ইনজেকশন, ইনসুলিন, স্যালাইন, ডুস, ইনহেলার ইত্যাদি নিলে রোযা ভঙ্গ হয়ে যাবে।

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।

প্রাসঙ্গিক আরো কথা
Related contents feature is in beta version.