আমাদের কথা খুঁজে নিন

   



শুক্রবার সকালে ১০টায় সিলেটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিলাম, পৌছালাম বেলা ৩টায়।হয্রত শাহজালাল(রঃ) এর মাজার জিয়ারত করে বের হয়ে দেখি গেটের সামনে অনেক রিকশা, সিএনজিওয়ালা দাঁড়িয়ে ডাকছে সিলেটের পর্যটন, চা বাগান, কমলার বাগান ইত্যাদি স্থান এ নিয়ে যাবার জন্য।চা বাগান পর্যন্ত আসা যাওয়া ভাড়া ১২০ টাকা এবং পর্যটন পর্যন্ত ২২০ টাকা।সিএনজি ভাড়া আরও বেশী।প্রথমে গেলাম চা বাগান।ঢোকার পথে দেখি ১০,১৫ জন চা শ্রমিক (যাদের মধ্যে ৪ জন মাদকাসক্ত্, ঠিকমত দাড়াতে পারছিল না)। তারা আমরা সহ আরও যারা বেড়াতে গিয়েছে তাদের কাছে জনপ্রতি ২০ টাকা করে দাবী করছে এবং প্রত্যেক গ্রুপের সাথে ওদের একজন যাবে, যাকে ৫০ টাকা দিতে হবে।এর মধ্যে দুইজন স্বামী স্ত্রী কে বের হয়ে আসতে দেখলাম যারা তাদের সাথের চা শ্রমিক ছেলেটাকে ৫০ টাকা দেবার পরও সে বখশিস হিসাবে আরও ৫০ টাকা নিয়েছে অনেকটা জোর করেই। এই অবস্থা দেখে আমরা কেউই আর ভিতরে যেতে সাহস করলাম না।গেলাম পর্যটন এর দিকে। প্রবেশপথে জনপ্রতি ২০টাকা টিকেট।ভিতরে বাচ্চাদের খেলার জন্য দোলনা, বসার জন্য কয়েকটা বেঞ্চি আর কিছু গাছ।কোক,আইস্কক্রিম আর পানির দাম দ্বিগুন। ভিতরে পার্ক ও আছে যেখানে প্রবেশমুল্য মাত্র ৩০ টাকা জনপ্রতি।পার্কেও ৩টা মাত্র রাইড যার মধ্যে ২টা চালানো হবে না কারন উঠার মত পর্যাপ্ত লোকজন নেই।আমাদের মত অনেকেই বিরক্ত হয়ে ফিরে আসছিল।ফেরার পথে রাস্তার দুধারে চা বাগানের সারির সৌন্দর্য দেখে মনটা ভরে উঠল।

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।

প্রাসঙ্গিক আরো কথা
Related contents feature is in beta version.