আমাদের কথা খুঁজে নিন

   

আমি এবং আমার মোবাইল ..। (শেষ অংশ)

আমি মানুষ। আমি মুসলিম। আমি বাংলাদেশী। আমি বাঙালী।

(পূর্ব প্রকাশের পর) আমি তো কিছুক্ষণ পাথরের মতো বসে থাকলাম । বিশবাস করতে পারছিলাম না যে মোবাইলটা আসলেই পরে গেছে । ওদিকে আমার ভাগিনা তালহা এসে বলল : তালহা : কি ব্যাপার ? এ ভাবে বসে আছ কেন ? আমি : শেষ হয়ে গেছে । তালহা : কি শেষ হয়ে গেছে ? আমি : মোবাইল । তালহা : মানে ? আমি : মোবাইল পরে গেছে বাহিরে । তালহা : খাইছে! তারাতারি নীচে যেতে হবে। আমি আর ও নীচে গেলাম । দারোয়ান কে বললাম আমার মোবাইলটে পরে গেছে । দেখেছেন ? বলল না । আমি বললাম কোন আওয়াজ পাননি ? বলল না । আমি তার মোবাইল থেকে আমারটায় কল দিলাম । কিন্তু দেখি মোবাইল বন্ধ বলছে। আমি মনে করলাম যে একেবারেই গেছে । আমি এরপর ২ তলায় গেলাম । কারণ ২ তলার বারান্দাটা বড় । মানে সামনের দিকে বেশী । তাই নীচে না পরলে ওখানেই পরার কথা । দরজায় নক করলাম । ভীতর থেকে আওয়াজ আসলো, কে ? আমি বললাম, আমি ৬ তলায় থাকি । তারপর একজন ভদ্রলোক এসে দরজা খুললেন । আমি : আমার মোবাইলটা নীচে পরে গেছে । বারান্দায় পরতে পারে । একটু দেখবেন ? ভদ্রলোক : বারানদা থেকে মোবাইল কি ভাবে পরে ? আমি : হাত থেকে পরে গেছে । ভদ্রলোক : ঠিক আছে, একটু দাড়াও। একটু পরে উনি মোবাইল আর ব্যাটারি নিয়ে আসলেন । আমি ব্যাটারি লাগিয়ে মোবাইল অন করলাম । মোবাইল ঠিকই অন হোলো কিন্তু দেখি এলছিডি ভেঙ্গে গেছে । মোবাইলটা যে আছে সে জন্যে সাথে সাথে আল হামদুলিল্লাহ পড়লাম কয়েকবার । মোবাইল এর বাকি সব ঠিক আছে । কল আসে, রিসিভ করা যায়, গান শুনা যায়, কল করা যায়..। ভাইয়া কে কল করলাম । ভাইয়া বলল আচ্ছা, ঠিক আছে । নিয়ে আসিস ঠিক করে দিবো । এখন যে অবস্হা : ওটা ভাইয়ার কাছে আর আমাকে ভাইয়া একটা নোকিয়া ১৬০০ দিয়েছে আপাদত ব্যভার করার জন্যে । তবে সবচেয়ে বড় কথা হলো মোবাইলটা যে আছে এই বেশী। কি বলেন আপনারা ?

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।