আমাদের কথা খুঁজে নিন

   

কবিতা প্রতিমার স্টাচু

কবিতা :
আকাশ চোখে নিয়ে ; ঘাস ছুঁয়ে—ইনিয়ে-বিনিয়ে খালি পায়ে হাঁটা।
কারো আসবার খুশির খবর পেয়ে... অনেকক্ষন থেকেই
উৎসুক হয়ে স্টেশনে গিয়ে বসে থাকা।
হঠাৎ অজানা-এক ইচ্ছাতে পড়ে শুধু শুধু বৃষ্টিতে বহুদূর ভেজা।
কিছু কিছু বৈঠকি মুখের সাথে নিয়ত যোগাযোগ রাখবার উত্তুঙ্গ-উতল নেশা।
অনেক স্মৃতি-স্বপ্নে গড়া সবেমাত্র একটা মুহূর্তকেই
অন্য সব মুহূর্তে ধরে রাখা।

কবিতা :
যখন-তখন প্রয়োজনে মুঠোভরা মহান-দামিনী হাত।
চাইবামাত্রই পাতে পড়া প্রচণ্ড গরম ভাত।
শাসন-বারণ আর না মানা... মোহভরা আম কুড়ানো ঝড়ের রাত।
কৈ মাছের প্রাণ ; অবিরাম বিনামেঘে বিনাঝড়ে বজ্রপ্রপাত।
বামুনদের পুকুরের বেড়া ভেঙে দিয়ে বাগদিদের ছাড়া হাঁস।

কবিতা :
দাদাকে বউদির বিখ্যাত-নিলজ্জ আদর, চুপিচুপি বলে দেওয়া
বাহির-ভিতর যাবতীয় সব কথা।
মায়ের কোলে বাবার আদরে আমার সেই দারুণ ভালোলাগা ছেলেবেলা।
আইবুড়ো মন-উচাটন মেয়ের কৌশলে লুকিয়ে-চুপিয়ে ছেলে দেখা।
বারবার সবকিছু বলার পরেও— আবার অনেক কিছুই বাকি থাকা।
দামাল উপকূলের দোলাচল টপকে মাঝ-মাঝ সমুদ্রে নিথর হয়ে আসা।

কবিতা :
হঠাতই ছড়িয়ে পড়া ঝড়ে দলা মাঠে, ফসলের রাশ।
খুব ছেলেবেলা থেকে শুনে আসা আমাদের একান্ত পারিবারিক কিছু সমস্যা এবং
সংস্কার।
আমার মেয়ের লাজুক-ইতস্তত হাতে জামাইয়ের আগাম পাঠানো উপহার।
চালচুলোহীন বোকাটে একলা ছেলের নিঃস্বার্থ-বেহিসাবি দেশসেবা।
বউয়ের নিজের হাতে সাজানো ঘরদোরে আমার বিষম বেয়ারা অসভ্যতা।

কবিতা :
একহাতে ছুঁড়ে ফেলে, অন্য হাত দিয়ে ঠিক ধরা
আর ক্রমাগত ধরে থাকা।
‘কবিতা আবার আসব’ এই কথা দিয়ে যাওয়া


- সুব্রত সামন্ত (বুবাই)
খানাকুল, হুগলি।

সোর্স: http://prothom-aloblog.com     দেখা হয়েছে ৩৬ বার     বুকমার্ক হয়েছে বার

অনলাইনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কথা গুলোকেই সহজে জানবার সুবিধার জন্য একত্রিত করে আমাদের কথা । এখানে সংগৃহিত কথা গুলোর সত্ব (copyright) সম্পূর্ণভাবে সোর্স সাইটের লেখকের এবং আমাদের কথাতে প্রতিটা কথাতেই সোর্স সাইটের রেফারেন্স লিংক উধৃত আছে ।